ডিগ্রী ভর্তি আপডেট 2022 | ডিগ্রী রেজাল্ট দেখার নিয়ম | ডিগ্রিতে ভর্তি হতে কত টাকা লাগে |

ডিগ্রী ভর্তি আপডেট 2022 | ডিগ্রী রেজাল্ট দেখার নিয়ম | ডিগ্রিতে ভর্তি হতে কত টাকা লাগে |


আসসালামু আলাইকুম আশা করি সকলে ভালো আছেন। আজকে আমরা আপনাদের সঙ্গে ডিগ্রি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। আশা করি আপনারা সামান্য পরিমাণ হলেও উপকৃত হবেন ইনশাআল্লাহ।

ডিগ্রী ভর্তি আপডেট 2022

2021 22 বর্ষে যারা ডিগ্রিতে আবেদন করেছে। অনেক দীর্ঘ সময় পর তাদের রেজাল্ট দিয়েছে। রেজাল্ট দিতে দেরি হওয়ার মূল কারণ হলো ডিগ্রিতে সিট সংখ্যা বৃদ্ধি করা। এর কারণে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করার পর 14 তারিখ ডিগ্রী রেজাল্ট ঘোষণা করেছে। ডিগ্রি ভর্তি নিয়ে আমাদের সবার মনেই করো না কোন প্রশ্ন থাকে। আসুন জেনে নেই সকল প্রশ্নের উত্তর।

ডিগ্রিতে আবেদন করার নিয়ম

ডিগ্রিতে আবেদনের নিয়ম অনেকটা অনার্সের আবেদনের মতই। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট থেকে এই আবেদন সম্পন্ন করতে হয়। প্রাথমিক আবেদন সম্পন্ন করার পর কিছুদিন পরে রেজাল্ট প্রকাশিত হয়। অনেকে ভর্তির জন্য উত্তীর্ণ হলেও অনেকেই উত্তীর্ণ হতে পারে না। যারা ভর্তির জন্য উত্তীর্ণ হওয়ায় তারা এডমিশন ফরম পূরণ করার মধ্য দিয়ে কলেজে ভর্তি হতে পারে। তবে যারা ভর্তি হওয়ার জন্য উত্তীর্ণ হয় না তাদের জন্য সুযোগ থাকে। অনার্স এর মত ডিগ্রিতে প্রথম মেরিট লিস্ট দ্বিতীয় মেরিট লিস্ট প্রথম রিলিজ স্লিপের মাধ্যমে ভর্তি হওয়ার সুযোগ রয়েছে। তবে যদি কেউ প্রাথমিক আবেদন না করে তাহলে উক্ত আবেদনগুলো নোটিশে করতে পারবে না 
আবেদন করার লিংক নিচে দেওয়া থাকবে    nu.ac.bd.com

ডিগ্রিতে আবেদন করার যোগ্যতা

ডিগ্রী তে আবেদন করার জন্য এইচএসসি ও সমমান দাখিল অথবা ভোকেশনাল থেকে ন্যূনতম 2 পয়েন্ট পেতে হয়। এবং এসএসসিতে ও ন্যূনতম দুই পয়েন্ট পেতে হবে। কেউ যদি এইচএসসিতে 3.5 এবং এসএসসিতে 1.5 তাহলে সে আবেদন করতে পারবে না। উভয় ক্ষেত্রেই 2 পয়েন্ট পেতে হবে।

ডিগ্রিতে আবেদন করার ফি কত

ডিগ্রিতে প্রাথমিক আবেদন করার 250 টাকা। প্রথম মেরিট লিস্ট দ্বিতীয় মেরিট লিস্ট প্রথম রিলিজ স্লিপ আবেদন করার জন্য কোন রকম টাকা লাগেনা। তবে আপনি যদি কম্পিউটার অপারেটর থেকে আবেদনগুলো করে থাকেন সেক্ষেত্রে তারা ন্যূনতম 50 টাকা নিতে পারে।

ডিগ্রী রেজাল্ট দেখার নিয়ম

ডিগ্রী রেজাল্ট দেখার পদ্ধতি দুই ধরনের। আপনি চাইলে ওয়েবসাইট থেকে রেজাল্ট দেখতে পারেন অথবা ফোনে মেসেজ এর মাধ্যমে রেজাল্ট দেখতে পারেন। তবে অনেকেই মনে করেন অটোমেটিক আপনার ফোনে এসএমএস আসবে। এটি সম্পূর্ণ ভুল ধারণা। 

ওয়েবসাইট থেকে রেজাল্ট দেখার নিয়ম

এক্ষেত্রে আপনাকে সর্বপ্রথম জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে ঢুকতে হবে। এরপর অ্যাপ্লিকেশন লগইন এ যেতে হবে।  প্রাথমিক আবেদন ফরমে রোল এবং পিন দেওয়া আছে সেটি সেখানে বসাতে হবে। এরপর আপনি দেখতে পারবেন আপনার রেজাল্ট।

ডিগ্রী তে চান্স পেলে করণীয় কি

যারা চান্স পাচ্ছে তাদের জন্য সর্বপ্রথম যেটা করণীয় সেটা হল এডমিশন ফরম পূরণ করা। তবে এডমিশন ফরম পূরণ করতে গিয়ে কোনো রকম ভুল করা যাবেনা। 2021 22 ডিগ্রি এডমিশন ফরম পূরণ করার সর্বশেষ তারিখ হল 24। 24 তারিখের মধ্যেই এডমিশন ফরম পূরণ করতে হবে। এডমিশন ফরম পূরণ করে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে উক্ত কলেজে জমা দিতে হবে।

প্রথম মেধাতালিকায় চান্স না পেলে করণীয় কি

কেউ যদি প্রথম মেধাতালিকায় চান্স না পায় সে ক্ষেত্রে তার মন খারাপ করার কোন কারণ নেই। প্রথম মেধাতালিকায় চান্স না পেলে ও পরবর্তীতে ভর্তি হওয়ার অনেক রকম সুযোগ রয়েছে। প্রথম রিলিজ স্লিপ এবং দ্বিতীয় রিলিজ স্লিপে আবেদন করার মধ্য দিয়ে ভর্তি হতে পারবেন।

ডিগ্রিতে ভর্তি হতে কত টাকা লাগে

অনেকের মনে প্রশ্ন ডিগ্রিতে ভর্তি হতে কত টাকা লাগে। ডিগ্রিতে ভর্তি হওয়ার জন্য 2500 থেকে 5 হাজার টাকা পর্যন্ত লাগতে পারে। টাকার সমীকরণটা কলেজের ওপর নির্ভরশীল।

ডিগ্রিতে কি সেশন জট রয়েছে

ডিগ্রিতে ভর্তি হবার আগে সবার মনেই একটি বড় ধরনের প্রশ্ন থাকে, আর সেটি হল টিকটিকি সেশনজট রয়েছে? এটির উত্তরে আমি বলব বর্তমানে কোন সেশনজট নেই। এর আগে ডিগ্রী কোর্স সম্পন্ন করতে পাঁচ থেকে ছয় বছরের মতো লেগে যেত। কিন্তু বর্তমানে সে রকম নয়। বর্তমানে ডিগ্রী কোর্স তিন বছরে সম্পন্ন করা যায়। তাই আমরা বলতে পারি ডিগ্রিতে কোন সেশনজট নেই।

অনার্স এবং ডিগ্রির মান কি সমান?

অনার্স ও ডিগ্রির মান নিয়ে অনেকের মনেই নানান ধরনের প্রশ্ন, কেউ বলে অনার্স ও ডিগ্রির মান অনেক পার্থক্য। আবার অনেকে বলে থাকে অনার্স এবং ডিগ্রির মধ্যে তেমন কোন পার্থক্য নেই। আসুন জেনে নেই অনার্স ও ডিগ্রির মধ্যে কতটুকু পার্থক্য রয়েছে। অনার্স মূলত একটি নির্দিষ্ট সাবজেক্টের উপর আপনাকে শিক্ষণ দেবে। অপরদিকে ডিগ্রী কয়েকটি সাবজেক্টের উপর আপনাকে দেবে। অনার্সের কি মূলত চার বছরের কোর্স তিন বছরে। কিছু বছর আগে অনার্স এবং ডিগ্রির মধ্যে পার্থক্য ছিল। বর্তমানে অনার্স এবং ডিগ্রির মধ্যে পার্থক্য নেই। তিন বছর পর এক বছর মাস্টার্স করলে আনুমানিক অনার্সের সম্মান পাওয়া যায়। তাই বলা যায় অনার্স এবং ডিগ্রির মান সমান না হলেও কাছাকাছি। অনার্স এবং ডিগ্রির মান সমান নয়।

 ডিগ্রিতে কোন সাবজেক্ট ভালো হবে

ডিগ্রিতে সাবজেক্ট চয়েস অনেক গুরুত্বপূর্ণ। ডিগ্রিতে মূলত বিএ ,বিএসএস ,বিএসসি , বিবিএস।
উক্ত বিভাগগুলি মূলত বিজ্ঞান বিভাগ মানবিক ব্যবসায় বিভাগ এর জন্য। মানবিক বিভাগের জন্য সবচেয়ে ভালো হবে বিএসএস। বিএসএস মানে হল ব্যাচেলর অফ সোশ্যাল সাইন্স। তবে বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্ররা ও বিএসএস নিতে পারবে। কোন বিভাগে কোন কোন সাবজেক্ট আছে তা নিচে আলোচনা করা থাকবে।

গভর্নমেন্ট কলেজে ভর্তি হতে খরচ কেমন হবে

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে গভর্মেন্ট কলেজের সংখ্যা অত্যাধিক। গভর্নমেন্ট কলেজে ভর্তি হওয়ার জন্য 2500 থেকে 3500 টাকার মধ্যে লাগে। non-government কলেজে 5000 টাকা পর্যন্ত লাগতে পারে।

অনার্স এর পাশাপাশি ডিগ্রী করা যায়

অনেকেই প্রশ্ন করে থাকেন অনার্স এর পাশাপাশি ডিগ্রী করা যায় কিনা।  অনার্স এর পাশাপাশি ডিগ্রী করা সম্ভব না। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি কোর্স এর পাশাপাশি অন্য কোর্স করা সম্ভব না। এক্ষেত্রে আপনাকে ডিগ্রিতে ভর্তি হতে হলে পূর্বে যদি কোন বিভাগে ভর্তি হয়ে থাকেন সেটি বাতিল করতে হবে্। বাতিল করার জন্য জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় নোটিশ দিবে্। আপনি যদি পুর্বের ভর্তি বাতিল না করেন তাহলে আপনার উভয় আবেদন বাতিল করা হবে।


কলেজে ভর্তির টাকা কিভাবে দিতে হয়

কলেজে ভর্তির টাকা দেওয়ার জন্য কলেজের ওয়েবসাইট থাকে। যেকোনো মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে অথবা ব্যাংক এর মাধ্যমে ভর্তির টাকা প্রদান করা সম্ভব। বিকাশ বা রকেট এর মাধ্যমে কলেজের আইডি দিয়ে ভর্তির টাকা প্রেরণ করা হয়্।বে কিছু কলেজে অনলাইনে ভর্তির টাকা প্রেরণের কোন সুযোগ থাকে না। সেসকল কলেজে সরাসরি গিয়ে ভর্তি টাকা দিতে হয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ